টিপস

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই খুবই সহজে

বন্ধুরা আজকের এই অনুচ্ছেদে আমরা অনলাইনে কিভাবে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করবেন সে বিষয়ে আলোচনা করছি। তাই আজকের এই অনুষ্ঠানটি পড়লে আপনি জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন, নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন, ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন। তাই আপনারা যারা জন্ম নিবন্ধন যাচাই সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রশ্ন জানতে চাই আমার এই অনুচ্ছেদে এসেছেন তাদের সকলকে এই অনুচ্ছেদে স্বাগতম। খুব সহজে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা যায়। তাই আজকের এই অনুচ্ছেদে আমরা বিস্তারিত তথ্য আলোচনা পাশাপাশি আপনাদের সকল তথ্য হাতেনাতে শিখিয়ে দেব। আশা করি আমার এই অনুচ্ছেটি আপনাদের ভালো লাগবে।

বর্তমান সরকার প্রত্যেকটি শিশু জন্মের পর থেকে জন্ম নিবন্ধন করা বাধ্যতামূলক করে দিয়েছে। আপনি যখন 18 বছর বয়স হবেন তখন আপনার বাধ্যতামূলক জাতীয় পরিচয় পত্র বা এন আই ডি কার্ড থাকবে কিন্তু যখন একটি শিশু 18 বছর বয়সের কম হয় তখন তার একমাত্র আইডেন্টি কার্ড হল জন্ম নিবন্ধন। বর্তমান সময়ের জন্ম নিবন্ধন একটি শিশুর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কারণে স্কুলে ভর্তি সহযাগতীয় সরকারি সুযোগ সুবিধা পাওয়ার জন্য জন্ম নিবন্ধন থাকা অত্যন্ত জরুরী। তাই আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার জন্য আবেদন করে থাকেন আপনার প্রকৃতি সম্পন্ন হয়েছে কিনা সেটি যাচাই করার জন্য অনলাইন পদ্ধতি আছে।আপনি অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন সে ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম পদ্ধতি আছে আমরা সবগুলো এক এক করে আলোচনা করব।

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করা যায়। বাংলাদেশ সরকারের জন্ম নিবন্ধন যাচাই বা জন্ম নিবন্ধন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে খুব সহজে আপনার 17 ডিজিটে জন্ম নিবন্ধনের নাম্বারটি এবং জন্ম তারিখ ব্যবহার করে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন। প্রক্রিয়াটি সুন্দরভাবে আলোচনা করা হয়েছে।

  1. জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার জন্য everify.bdris.gov.bd ওয়েবসাইটে যান।
  2. তারপর, আপনার ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন ইংরেজিতে লিখুন ও জন্ম তারিখ বাছিই করুন।
  3. ক্যাপচা প্রশ্নের উত্তর লিখুন। তারপর সার্চ বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ ১ঃ প্রথমে জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক Apps Birth and Death Verification সাইটে যান। নিচের মত একটি পেইজ পাবেন।

Related Articles

ধাপ ২ঃ এখানে আপনার ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নম্বরটি ইংরেজিতে লিখুন ও জন্ম তারিখ লিখুন এই ফরমেটে জন্ম নিবন্ধন যাচাই yyyy mm dd। অর্থাৎ প্রথমে জন্ম সাল তারপর একটি হাইপেন (-) তারপর মাস এবং তারিখ। প্রয়োজনে ছবিতে দেখুন।

যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বরটি ১৭ ডিজিটের কম হয় তাহলে কিভাবে ১৭ ডিজিট করবেন তার ট্রিক নিচে দেয়া হয়েছে। দেখুন- ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই।

ধাপ ৩ঃ এবার আপনি রোবট কিনা তা যাচাইয়ের জন্য একটি ক্যাপচা প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। এখানে সাধারণত কোন যোগ-বিয়োগ প্রশ্ন দেয়া হয়। তার সঠিক উত্তর লিখে Search বাটনে ক্লিক করে আপনার জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি ডাউনলোড 2024

আপনার বাছাই করা জন্ম নিবন্ধনের কপিটি ডাউনলোড করার জন্য খুব সহজ পদ্ধতি আছে আমরা নিচে আলোচনা করেছি। অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সম্পূর্ণ করার পর আপনি যে জন্ম নিবন্ধন নাম্বারটি পেয়েছেন সেটি ব্যবহার করে খুব সহজেই জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড করতে পারবেন। আপনি যদি ইউনিয়ন পরিষদের আওতায় থাকেন তাহলে ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে কিংবা সিটি কর্পোরেশন অথবা পৌর মেয়রের কার্যালয়ে গিয়ে আপনার জন্ম নিবন্ধনে সার্টিফিকেট সংগ্রহ করতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *