স্ট্যাটাস

চুপ থাকা নিয়ে স্ট্যাটাস উক্তি ও ক্যাপশন

চুপ থাকা বা নিরব থাকা, আজকের এই অনুষ্ঠানে আমরা চুপ থাকা নিয়ে স্ট্যাটাস উক্তি ও ক্যাপশন আলোচনা করব। তাই আপনারা যারা চুপ থাকা নিয়ে স্ট্যাটাস, চুপ থাকা নিয়ে উক্তি, চুপ থাকা নিয়ে ক্যাপশন অনুসন্ধান করে আমার এই অনুচ্ছেদে এসেছেন তাদের সকলকে স্বাগতম।

আমরা অনেক সময় আমাদের চারপাশে অনেক রকম অন্যায় অবিচার হতে দেখি কিন্তু তারপরও আমরা চুপ থাকি বা নীরব থাকি। এটা আসলে অন্যায়কে প্রশ্রয় দেওয়া নয় আমরা ঠিক সেই সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করে থাকি যে সময় পর্যন্ত কোন মানুষ তার ধৈর্যসীমা অতিক্রম না করে। এটি একজন মানুষের মহৎ গুণ যে কোন বিষয় সহজেই কোন মন্তব্য না করে শেষ অবধি নীরব থাকা। তাই আজকের এই অনুচ্ছেদে আমরা চুপ থাকা নিয়ে কিছু স্ট্যাটাস ও ক্যাপশন আপনাদের সামনে তুলে ধরব।

আপনারা যারা আপনাদের চারপাশে অনেক অবিচার হতে দেখেও চুপ থাকেন তাদের উদ্দেশ্যে আমার এই অনুচ্ছেদটি। আসলে প্রত্যেকের জীবনে একটি প্রতিবাদী গুণ আছে। কারো খুব বেশি এবং কারো কম। যাদের প্রতিবাদী গুণ খুব বেশি তারা কিন্তু সব ক্ষেত্রেই যে ভালো কাজ করে তা কিন্তু নয়। অনেক ক্ষেত্রে অতি উৎসাহ হয়ে নানা রকম ভুল কাজ করে ফেলতে পারে।

তাই একজন মানুষকে নীরব থাকা প্রয়োজন যতক্ষণ না পর্যন্ত অপরাধী ব্যক্তিটি তার সীমানা অতিক্রম না করে। অপরাধী ব্যক্তিটি যদি সীমানা অতিক্রম করে অবশ্যই সেই বিষয়ে প্রতিবাদ করা দরকার এবং নীরবতা ভেঙে ফেলা দরকার। তাই আপনি কতক্ষণ পর্যন্ত নীরব থাকতে পারবেন সে বিষয়ে আপনি যদি স্ট্যাটাস দিতে চান তাহলে আমার এই অনুচ্ছেটি আপনাকে সাহায্য। আমার এই অনুচ্ছেদে চুপ থাকা নিয়ে কিছু স্ট্যাটাস এবং উক্তি আপনাদের সামনে তুলে ধরব।

Related Articles

চুপ থাকা নিয়ে স্ট্যাটাস

অনেকেই চুপ থাকা নিয়ে স্ট্যাটাস অনুসন্ধান করে থাকেন। প্রতিদিন গুগোলে লক্ষ্য করলে বোঝা যায় কত মানুষ চুপ থাকা নিয়ে স্ট্যাটাস অনুসরণ করে। সেই সকল মানুষদের উদ্দেশ্যে আজকের এই অনুষ্ঠানে আমরা অসাধারণ কিছু স্ট্যাটাস নিয়ে হাজির হয়েছি। তাই যে কোন বিষয়ে আপনি নীরবে সহ্য করে নিতে মন মানসিকতা থাকলে আমার এই স্ট্যাটাস গুলো আপনাদের ভালো লাগতে পারে।

.কথা বলার জন্য যে শক্তি আর যোগ্যতার প্রয়োজন, চুপ থাকার জন্য তার চেয়ে অনেক বেশি শক্তি আর যোগ্যতার প্রয়োজন।

জীবনে যতো বড় হবে ততো বুঝতে পারবে যে, কোন কিছু নিয়ে তর্ক করার চেয়ে নীরব থাকাই শ্রেয়।

আপনি যা বলতে যাচ্ছেন তা যদি নীরবতার চেয়ে বেশী সুন্দর হয়, তবেই আপনার মুখ খুলুন।

একজন মূর্খ লোককে তার কথাবার্তা দ্বারা এবং একজন জ্ঞানী ব্যক্তিকে তার নীরবতার দ্বারা চেনা যায়।

জীবনের গভীরতম অনুভূতি গুলো প্রায়ই নীরবে প্রকাশ করা হয়।

তোমার কণ্ঠ তোমার নাম বিশ্বকে জানিয়ে দেবে কিন্তু তোমার নীরবতা আর সংগ্রাম তোমাকে তোমার পরিচয় দেবে।

বেশী কথা বলা আমাদের চিন্তার পরিধিকে সীমিত করে। কিন্তু কম কথা বললে আমাদের চিন্তার পরিধি প্রসারিত হয়।

নীরবতা হল প্রকৃত বন্ধু যে কখনই বিশ্বাসঘাতকতা করে না।

এমন নয় যে জ্ঞানী ব্যক্তি কথা বলতে জানেন না, তিনি নীরব থাকেন কারণ তিনি জানেন কোথায় কথা বলতে হবে।

ভগবানও আমাদের অনেক কথা শোনার উপদেশ দেন, তাই তিনি আমাদেরকে একটি মুখ ও দুটি কান দিয়েছেন।

যদি আরেকটু নীরবতা থাকতো, যদি আমরা সবাই চুপ থাকতাম, হয়তো আমরা কিছু বুঝতে পারতাম।

নীরব থাকা নিয়ে উক্তি

পৃথিবীর অনেক বিখ্যাত মনীষ বর্গ কিভাবে নীরব থাকতে হয় এবং নীরব থাকা নিয়ে কিছু বিখ্যাত উক্তি প্রদান করে গেছেন। আমরা এই অনুচ্ছেদে সেই সকল চুপ থাকা নিয়ে নিরব উক্তিগুলো আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করব। আশা করি আমার এই অনুচ্ছেদে আপনাদের পছন্দ হবে এবং আমার এই অনুচ্ছেদটি যদি আপনাদের পছন্দ হয়ে থাকে তাহলে আমার এই অনুচ্ছেদটি হতে আপনারা চুপ থাকা নিয়ে উক্তিগুলো সংগ্রহ করে নিতে পারেন।

১.”কখনো কখনো তোমাকে কিছুই বলতে হয় না নীরবতাই পুরোটা বলে দেয়।”-রুমি

২.”যে নীরবতাকে বুঝতে পারে না সে তোমার শব্দকেও খুব একটা বুঝতে পারবে না।”-এলবার্ট হাববার্ড

৩.”নীরবতা যখন মিথ্যা তখন নীরব থাকা সহজ হয় না।”- ভিক্টর হুগো

৪.”সবচেয়ে বাজে মিথ্যে গুলো সব সময় নীরবতার দ্বারাই সাধিত নয়।”-রবার্ট লুইস স্টিভেনসন

৫.”মিথ্যা শুধু কথার দ্বারাই নয় বরং নীরবতার দ্বারাও তা করা যায়।”-এড্রিয়েনি রিচ

৬.”নীরবতা হলো এক মহা শক্তির আধার।”-লাও যু

৭.”যখন সত্য নীরবতা দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয় তখন সেই নীরবতা হলো একটি মিথ্যার সমান।”- ইয়েভগেনি
ইয়েভতুসেন্কু

৮.”নীরবতা হলো ক্ষমতার সবচেয়ে বড় অস্ত্র।”-চার্লস ডি গাউলে

৯.”নীরবতা হলো একজন প্রকৃত জ্ঞানীর প্রতিত্তর।”- ইউরোপিডস

১০.”ভাষা তোমার মনকে সন্তুষ্ট করতে পারে তবে নীরবতা তোমার আত্মাকে প্রশান্ত করবে।”-নিতিন নামডেও

১১.”তোমার নীরবতা কখনোই তোমাকে রক্ষা করতে পারবে না।”-আদুরী লর্ডে

১২.”নীরবতা তখনই কথা বলে যখন ভাষা কথা বলতে পারে না।”-সংগৃহীত

১৩.”একজন ভালো শ্রোতা হতে হলে তোমাকে অবশ্যই নীরবতা কাকে বলে শিখতে হবে।”-উরসুলাক লেগুন

চুপ থাকা নিয়ে ক্যাপশন

কোন একটি বিষয় আপনি যদি নীরবে সহ্য করে নেন তাহলে অনেকে ভাবতে পারে আপনি ভীতু। আমার পক্ষে মনে হয় এটি আপনার নিরব প্রতিবাদ মোটেই আপনি ভীতুর প্রমাণ দিচ্ছেন না। আপনি বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করে শেষ অবধি অপেক্ষা করছেন।

আপনার মোক্ষম সময় যখন চলে আসবে তখন ঠিক ওই আপনি সেই বিষয়ে প্রতিবাদ করবেন এবং সেই বিষয়ের মন্তব্য করবেন। তাইতো আজকের এই অনুচ্ছেদে আমরা চুপ থাকা নিয়ে কিছু ক্যাপশন আপনাদের সামনে তুলে ধরব।

একজন বুদ্ধিমান ব্যক্তি তার কথার চেয়ে তার কর্ম দ্বারা নিজেকে প্রমাণ করে।

নীরব ব্যক্তিকে কখনই বোকা ভাববেন না। সে শান্ত কারণ সে বুদ্ধিমান ।

মনের ভাব প্রকাশের জন্য সব সময় ভাষার প্রয়োজন হয় না, কিছুক্ষন নীরবতাতেই অনেক কিছু প্রকাশ হয়ে যায়! সেটা বুঝতে হলে সুন্দর একটা মনের দরকার!

আমাদের জীবনের সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ কথোপকথন নীরবে ঘটে।

সমাজ যেখানে নীরব থাকা উচিত সেখানে কথা বলে এবং যেখানে কথা বলার প্রয়োজন সেখানে নীরব থাকে।

নীরবতা একজন ব্যক্তির সত্যিকারের বন্ধু, যে তাকে তার সমস্ত অবাঞ্ছিত কষ্ট থেকে রক্ষা করে।

যেখানে চিন্তাকে সম্মান করা হয় না এবং সত্যকে অপ্রীতিকর মনে হয়, সেখানে নীরব থাকুন।

জীবনে এমন কিছু মুহুর্ত আসে যখন নীরব থাকা ছাড়া আর কিছু করার থাকে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *