টিপস

জমি না কিনে কিভাবে বাড়ি বানাবো?

জমি না কিনে কিভাবে বাড়ি বানাবো এই ধরনের প্রশ্ন যদি আপনার মাথায় ঘুরপাক খায় তবে আমার অনুচ্ছেদে আপনাকে স্বাগতম। আমার আজকের অনুচ্ছেদে জমি না কিনে কিভাবে বাড়ি বানানো যায় তা নিয়ে বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করব। অনুচ্ছেদ শুরু করার আগে সকলকে আমার শুভেচ্ছা। আশা করি আপনারা সকলে ভালো আছেন। সুপ্রিয় পাঠক বৃন্দ, আমার আজকের অনুচ্ছেদ তো মনোযোগ সহকারী পাঠ করলে কিভাবে জমি না কিনে বাড়ি বানানো যায় এ বিষয়ে খুঁটিনাটি সবকিছুই জানতে পারবেন আশা করি। তাহলে চলুন, কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

জমি না কিনে বাড়ি বানানো সম্ভব কি?

আপনারা অনেকেই আছেন যাদের মনে একটা প্রশ্ন ঘুরপাক খায় যে আপনার তো কোন জমি জমা নেই। কিন্তু আপনার থাকার জন্য বাড়ি বানানোর প্রয়োজন। জমি কেনার মত অর্থও নেই আপনার। তাহলে কি আপনি কোন জমি না কিনেই বাড়ি বানাতে পারবেন? আপনার এই প্রশ্নের উত্তর নেই আমার আজকের এই অনুচ্ছেদ। জি হ্যাঁ, জমি না কিনেও বাড়ি বানানো সম্ভব। তবে এর জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে। এখন আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে এই শর্তগুলো কি কি। দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই আমার অনুচ্ছেদ মনোযোগ সহকারে পুরোটা পাঠ করলেই আপনার প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।

জমি না কিনে বাড়ি বানাবো কিভাবে?

আপনি যদি দুস্থ হয়ে থাকেন কিংবা আপনার যদি বসত বাড়ি করার মত কোন জমি জায়গা না থাকে, সেক্ষেত্রে বসতবাড়ি তৈরি করার দুশ্চিন্তা আপনার মাথায় ঘুরপাক খাবে এটাই স্বাভাবিক। এ নিয়ে আপনার অনেকেই অনলাইনে সার্চ করে থাকেন, যে এই সমস্যা থেকে আপনি কিভাবে পরিত্রাণ পেতে পারেন। আপনাদেরকে উদ্দেশ্য করেই আমার এই বিশেষ অনুচ্ছেদ। আপনি অবশ্যই জমি না কিনে বাড়ি বানাতে পারবেন। এজন্য আপনাকে কিছু শর্ত মেনে চলতে হবে। শর্তগুলো হলো- আপনার যদি কোন কৃষি জমি জমা না থাকেআপনার বসতবাড়ি করার ১০ শতক পরিমাণ জায়গা আছে কিন্তু কোন কৃষি জমি না থাকে আপনার পরিবার যদি একমাত্র কৃষির উপর নির্ভরশীল হয়।

উপরোক্ত শর্তাবলী পূরণ সাপেক্ষেই কেবলমাত্র আপনি জমি না কিনে সরকারি খাস জমিতে বাড়ি করার আবেদন মঞ্জুর করে নিয়ে বাড়ি করার সুযোগ পেতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে আরেকটি দিক মাথায় রাখতে হবে তা হলো, আপনার ইউনিয়নে পর্যাপ্ত পরিমাণ খাস জমি থাকা বাঞ্ছনীয়। যদি আপনার ইউনিয়নে কোন খাস জমি না থাকে কিংবা থাকলেও দুস্থ পরিবারে তুলনায় তা একেবারেই নগণ্য সেক্ষেত্রে খাস জমি পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ। খাস জমি তে বাড়ি করার জন্য উপজেলা ভূমি অফিসে আপনাকে একটি আবেদন জমা দিতে হবে। এই লিংকে ক্লিক করে আপনি সহজেই আবেদন করতে পারবেন।

Related Articles

জমি না কিনে বাড়ি বানানোর জন্য আবেদন করতে পারবে কারা?

অধিক ঘনবসতিপূর্ণ বাংলাদেশে বহু জনগণ আছেন যাদের বসতবাড়ি করার মত জায়গা জমি নেই। তারা বসতবাড়ি করার জায়গা নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় ভোগেন। আপনাদের দুশ্চিন্তা দূর করার জন্য আমার আজকের অনুচ্ছেদে কিভাবে জমি না কিনে বাড়ি বানানো যায়, কারা জমি না কিনে বাড়ি বানানোর জন্য আবেদন করতে পারে ইত্যাদি দিকনির্দেশনা মূলক তথ্য উপস্থাপন করছি। আপনি যদি এরকম সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনাকে দেখতে হবে যে আপনার ইউনিয়নে পর্যাপ্ত পরিমাণে খাস জমি আছে কিনা। যদি পর্যাপ্ত পরিমাণে খাস জমি থাকে সেক্ষেত্রে আপনাকে উপজেলা ভূমি অফিসে একটি আবেদন করতে হবে। তবে আবেদন মঞ্জুর হবে এরকম কিছু নির্দিষ্ট ব্যক্তি আছে। যারা যারা খাস জমির জন্য আবেদন করতে পারবেন-

  • বসত বাড়ি ও কৃষি জমিহীন দুস্থ পরিবার: আপনার পরিবার যদি বসতভিটা কিংবা কৃষিজমিহীন হয় তাহলে আপনি খাস জমির জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে এজন্য একেবারেই জমিহীন না হলেও চলবে। আপনার মালিকানাধীন সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ জমি থাকলে আপনি খাস জমির জন্য আবেদন করতে পারবেন।
  • দুস্থ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার: আপনার পরিবারে যদি এরকম কোন বীর মুক্তিযোদ্ধা থাকে যিনি মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন এবং আপনার কোন পারিবারিক কৃষি জমি না থাকে তাহলে আপনি খাস জমির জন্য আবেদন করতে পারেন। বাংলাদেশ সরকার এ ধরনের দুঃস্থ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করে থাকে।
  • নদী ভাঙ্গনে বসতবাড়ি ও কৃষিজমি হারিয়ে ফেলেছেন এরকম দুস্থ পরিবার: আপনি যদি নদীর পাড়ের বাসিন্দা হন এবং আপনার বসতবাড়ি এবং কৃষি জমি যদি নদী ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে যায় তাহলে আপনি সরকারি খাস জমির জন্য আবেদন করতে পারেন। এ ধরনের দুস্থ পরিবারকে সরকার কর্তৃক খাস জমি প্রদান করা হয়।
  • স্বামী পরিত্যাক্তা দুঃস্থ মহিলা: আপনি যদি এমন কোন দুঃস্থ মহিলা হয়ে থাকেন যে আপনার স্বামী আপনাকে পরিত্যাগ করেছে। আপাতত আপনার ভরণপোষণের দায়িত্ব আপনাকেই সামলাতে হয়। আপনার বাড়ি করার মত কোন কৃষি জমি বা বসতভিটা না থাকে। তাহলে আপনি খাস জমির জন্য আবেদন করতে পারেন।

আপনি যদি এরকম কেউ একজন হয়ে থাকেন তাহলে উপজেলা ভূমি অফিস বরাবর খাস জমির মালিকানার জন্য একটি আবেদন পত্র জমা দিতে পারেন। বাংলাদেশ সরকারের ভূমি মন্ত্রণালয় আপনার জন্য কিছু খাস জমির ব্যবস্থা করে দেবেন। আপনি সেই খাস জমিতে বসতবাড়ি তৈরি করতে পারবেন।

পরিশেষ: বাংলাদেশের কোন নাগরিক যারা বসতবাড়ি কিংবা কৃষিজমিহীন, এরকম দোস্ত পরিবারকে পুনর্বাসনের জন্য বাংলাদেশ সরকার একটি মহতী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এ ধরনের কোন পরিবার যদি বসত বাড়ি করার জমি চেয়ে আবেদন করে তাহলে উক্ত ইউনিয়নে বসতবাড়ি করার মত কিছু খাস জমি বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক ওই পরিবারকে দান করা হয়। আপনারা যারা এ ধরনের দুস্থ পরিবার, বসতবাড়ি করার মত জায়গা জমি পাচ্ছেন না, তারা কিভাবে জমি না কিনে বাড়ি বানাতে পারেন এ সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য আমার আজকের অনুচ্ছেদে তুলে ধরলাম। আশা করি আমার এই অনুচ্ছেদ থেকে আপনারা উপকৃত হবেন। লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যদেরকে জানানোর সুযোগ করে দেবেন। চাইলে আমাদের ওয়েবসাইটের অন্যান্য লেখাগুলো পড়ে দেখতে পারেন। সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *