টিপস

জীবনকে সুন্দর করার সঠিক উপায়

সম্মানিত সুধী আসসালামু আলাইকুম আশা করি সকলে ভাল আছেন আজকের এই নিবন্ধে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে। আমাদের জীবন সহজ সরল এবং সাফল্যের ভাবে কাটাতে আমরা সকলেই চাই। জীবনের সুখ দুঃখ হাসি কান্না নিয়ে জীবন তৈরি হয়।

এ জীবনে চড়াই উত্তরাই আছে। তাই জীবনকে সুন্দরভাবে সাজাতে হলে আমাদের সব সময় সময়কে দাম দিয়ে চলতে হবে। আজকের এই অনুচ্ছেদে কিভাবে জীবনকে সুন্দরভাবে সাজানো যায় জীবনকে সুন্দর করার উপায় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

জীবনকে সুন্দর করার সঠিক উপায়

জীবনকে সুন্দর করার জন্য আমাদের সব সময় গোছালোভাবে চলতে হবে। আমাদের জীবনকে আমরা সুন্দর করতে পারি এর জন্য কয়েকটি নিয়ম নীতির মানলেই আমাদের জীবন অনেক সুন্দর হবে। সুন্দর করার জন্য আমাদের প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে পিতা-মাতা ও গুরুজনের প্রতি সম্মান দেখানো। আমাদের গুরুজনকে সম্মান দেখায় আমাদের প্রথম কর্তব্য। তাদের কথামতো সমাজে চলা। সমাজের নিয়ম নীতি সঠিকভাবে মেনে নিজের দায়িত্ব গুলোকে সঠিকভাবে পালন করলে জীবন সুন্দর হবে জীবনকে সুন্দর করার জন্য অবশ্যই আত্মসম্মানবো থাকতে হবে। একজন মানুষের আত্মসম্মানবোধ না থাকলে সে কখনো তার জীবনকে সুন্দর করতে পারবে না। আত্ম সম্মানবোধ জীবনের অহংকার। নিজের প্রতি বিশ্বাস রেখে চলতে হবে। কোন সাফল্যের পিছনে অবশ্যই আত্মবিশ্বাস প্রয়োজন।

আত্মবিশ্বাস ছাড়া কোন কিছুই সম্ভব না তবে অতিমাত্রায় আত্মবিশ্বাস করা ভালো না। আপনি যা পারেন তাই নিয়ে সন্তুষ্ট থাকুন এবং নিজের যোগ্যতাকে সম্মান দিয়ে চলতে হবে তাহলেই দেখবেন আপনার যোগ্যতা অনুসারে আপনি আপনার সম্মানীয় স্থান পেয়ে যাবেন সমাজে। কোন অন্ধ বিশ্বাস রাখা যাবে না। আপনাকে জেনে বুঝে সকল সিদ্ধান্ত সঠিকভাবে গ্রহণ করতে হবে। কোন অন্ধ বিশ্বাস বা কারো কথায় কান না দিয়ে নিজের প্রতি বিশ্বাস রেখে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে নিজের সাফল্যের জন্য এবং সমাজের উন্নতির জন্য কাজ করতে হবে। অবশ্যই সমাজের প্রত্যেকটি ব্যক্তি প্রত্যেক পেশার মানুষের প্রতি আপনার শ্রদ্ধাবোধ থাকতে হবে। প্রত্যেকটি পেশাকে সম্মান জানিয়ে আপনার সমাজে বসবাস করতে হবে।

Related Articles

আপনার ভাবিকে নিয়ন্ত্রণ রেখে সমাজে চলতে হবে। সাফল্যের আর এক বাধার নাম আবেগ। যারা কখনো আপনি আপনার জীবনকে সফল করতে পারবেন না। সমাজের সমালোচনাকে কান না না দেওয়া এবং কারো সমালোচনা না করে আপনাকে সমাজে চলতে হবে তাহলেই আপনার জীবন দেখবেন সুন্দর এবং স্বাচ্ছন্দ্যে কাটতেছে। জীবন সুন্দর করার জন্য অবশ্যই সাফল্য প্রয়োজন আর এই সাফল্যের জন্য আপনার মধ্যে অন্তর্নিহিত সেই শক্তি সেই পরিশ্রম এবং সে সাফল্য তাকে চিহ্নিত করে সেই অনুযায়ী কাজ করতে হবে।

কিভাবে লাইফস্টাইল পরিবর্তন করা যায়

জীবনকে সুন্দর করে তোলার কৌশল এবং কিভাবে লাইফস্টাইল পরিবর্তন করা যায় এ নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে আজকের এই নিবন্ধে। মানুষের জীবনে দৈনন্দিন কাজের সকল কিছুই জীবনকে নিয়ে ঘিরে। জীবনকে সুন্দরভাবে গুছিয়ে তোলার প্রত্যাশাই সবাই করে। কিন্তু আমাদের প্রত্যেকদিনের নানা ব্যস্ততায় এবং ডিপ্রেশন থেকে জীবনের সুখ-দুঃখ হাসি কান্না থেকে আমরা দূরে হয়ে যাই ।স্বাভাবিক জীবন থেকে আমরা দূরে সরে দাঁড়াই। তাই জীবনে একা আমি থেকে মুক্তি পেতে চাইলে জীবনের লাইফ স্টাইল পরিবর্তন করতে হবে। ইউনিসেডে কিভাবে আপনি আপনার জীবনের লাইফস্টাইল পরিবর্তন করবেন এমন বিস্তার ধারণা দেওয়া হয়েছে।
কোন কাজে সফলতা আসবেই। সফলভাবে কোন কাজের জন্য আপনাকে পরিশ্রম করতে হবে। কোন কাজে পরিশ্রম করেন তাহলে অবশ্যই তার সফলতা একদিন না একদিন আসবেই। হতাশাগ্রস্ত হয়ে জীবনে কোন কাজ করলে সফলতা খুব কমই আসে বরঞ্চ আপনার শারীরিক এবং মানসিক দুর্বল হয়ে পড়বেন।

জীবনকে সুন্দর এবং সাজানো করতে হলে আপনার জীবন থেকে হতাশাকে দূরে রাখতে হবে। দেন তো নিয়ে সফলতার পিছনে পরিশ্রম করতে হবে।

জীবনকে সাবলীল সুন্দর করতে সব সময় হাসিখুশি থাকা প্রয়োজন। কোন বিষয়েই অবশ্যই সব সময় পজেটিভ মনোভাব ব্যক্ত করার চেষ্টা করতে হবে তাহলে দেখবেন আপনি খুব সহজে কোন বিষয়কে মেনে নিয়ে হাসিখুশি এবং আনন্দে থাকতে পারবেন।

ভালো থাকতে অবশ্যই নিজের যত্ন করতে হবে। শারীরিক যত্ন অবশ্যই রাখতে হবে। সঠিক মত এবং সময়মতো খাদ্য গ্রহণ করে আপনার শরীরের যত্ন নেওয়ার চেষ্টা করবেন এতে শরীর ও মন দুটোই ভালো থাকবে।

নিয়মিত ব্যায়াম করে স্বাস্থ্য ভালো থাকে। কোন জায়গায় বেড়াতে গেলে অবশ্যই আপনি একটু হাঁটার চেষ্টা করবেন দেখবেন হাঁটলে আপনার মন ভালো থাকবে এতে আপনার শরীরের উপকার হবে। নিয়মিত ব্যায়াম করলে দু চিন্তা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। প্রত্যেকদিনই সকালে ঘুম থেকে উঠে এবং বিকালে হাঁটার চেষ্টা করুন দেখবেন আপনার শরীরে উন্নতি সহ আপনার মানসিকভাবে উন্নতি হয়েছে।

আমাদের জীবন নানা কাজের ব্যস্ততার মধ্যে দিয়ে কাটে কিন্তু এই জীবনে অবসান সময় টুকে কাজে লাগানো আমাদের জন্য উত্তম। অবসর সময়ে আমরা মনোরম পরিবেশে ঘুরতে যাব পরিবারের সকলকে নিয়ে কোন এক জায়গায় ঘুরতে গেলে অবশ্য মন শরীর দুটোই ভালো থাকে। জীবনকে সুন্দর সাজানো করতে হলে জীবনের প্রয়োজন কিছু স্মৃতি। আপনি ঘুরতে গেলে এসব স্মৃতির আপনার হৃদয় ও মন কে ভালো করে।

জীবনকে কিভাবে সাজাবো

জীবনকে সুন্দর এবং সাফল্যমন্ডিত করতে হলে কিছু নিয়ম কানুন এর মধ্যে আপনাকে চলতে হবে। এ সকল নিয়ম কানুন আপনার জীবনে সফলতা বয়ে আনে। জীবনে এমন কিছু কর্ম করতে হয় যা জীবনকে সুন্দর এবং মৃত্যুর পরে আপনার জীবনের কতটা গুরুত্ব এরকম কিছু কাজ করতে হবে। জীবনকে সুন্দর সুখী এবং আনন্দময় করার জন্য আমাদের প্রত্যেকটি বিষয় ভাবতে এবং কাজ করতে হবে। জীবনকে সুন্দর রাখার জন্য সেরা কয়েকটি উপায় শেয়ার করলাম আপনাদের মধ্যে।

১ .জীবনকে সুন্দর করতে হলে অবশ্যই প্রতিটি মুহূর্ত আনন্দময় করার চেষ্টা করুন ।

২. সমাজের প্রত্যেক ব্যক্তির সাথে ভালো আচার ব্যবহার করি সমাজে বসবাস করুন।
পরিবারের সদস্যের সঙ্গে বেশি সময় কাটান তাহলে দেখবেন আপনার জীবন অনেক সুখী এবং স্বাচ্ছন্দ্যে কাটবে।

৩.কখনো হতাশা করবেন না জীবনে প্রত্যেকটি কাজকে সহজ ভাবে মেনে নিতে পারলেই আপনার জীবন সুখের হবে।

৪.মানসিকভাবে আপনাকে অনেক মজবুত হতে হবে কারণ সহজেই কোনো বিষয়ে আপনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়লে আপনার জীবনে নেমে আসবে দুঃখ তাই সমাজেই সবকিছু বিষয়কে মানসিকভাবে মেনে নিয়ে সুখে শান্তিতে জীবন কাটাতে হবে।

৫.নিজের ক্রোধের উপর নিয়ন্ত্রণ রাখুন।

৬.জীবনকে সুন্দর করতে হলে অবশ্যই একাগ্রতা দরকার। একাগ্রতা মানুষকেই ভাবায়।জীবন নির্ভাহ করলে জীবন সুন্দর এবং সাবলীল হবে এই নিয়ে ভাবতে পারলে আপনার জীবন অবশ্যই সুখে শান্তিতে কাটবে।
বেশি বেশি ভ্রমণ করুন দেখবেন আপনার মানসিক চিন্তা দূর হয়ে আপনার জীবনে কিছু সুন্দর সুন্দর মুহূর্ত তৈরি হয়েছে।

৭.সামাজিক কাজে যুক্ত থাকুন তাহলে দেখবেন আপনার মন ভালো হবে সমাজের উন্নতি এবং সেবামূলক কাজ করলে হৃদয় ও মন ভালো থাকে।

৮.জীবনে সব সময় সত্যের পথ অবলম্বন করে চলতে হবে। সঠিক এবং মিথ্যাকে অবশ্যই মিথ্যা বলে আপনার জীবনের পথ চলতে হবে।

৯.অবশ্যই নিজের আত্মসম্মানবোধ থাকতে হবে। আত্মসম্মানবোধ আপনার অহংকার আপনার জীবনের গর্ব।
কোন কিছুর আসক্তি থেকে নিজেকে মুক্ত রাখুন।

১০.নিজেকে সম্মান করুন এবং নিজের কাজের প্রতি বিশ্বাস রেখে জীবন নির্বাহ করুন তাহলে দেখবেন আপনার জীবন অনেক সুন্দর কাটবে।

জীবনকে কিভাবে উপভোগ করা যায়

সৃষ্টির শুরু থেকেই মানুষের জীবন নিয়ে কৌতুহল। একটি ক্ষুদ্রতম প্রাণী থেকে শুরু করে পৃথিবীর সবচেয়ে বৃহপ্রাণীদের কাছে কৌতুহল এই জীবন নিয়ে। জীবন যেমন সত্য তেমনি মরণ আরো অনেক বেশি সত্য। জীবন আছে বলেই মরতে হবে। এ ক্ষুদ্র সময়ের জীবনকে উপভোগ করতে পারলেই জীবনের মুখ্য উদ্দেশ্য পূরণ হয়। জীবন কি উপভোগ করতে পারায় বুদ্ধিমানের কাজ। জীবনকে অনেকভাবেই উপভোগ করা যায়। এগুলোকে উপভোগ করার জন্য এক একজন এক এক রকম করে ভাবে। আমি আপনার জীবনকে সুন্দরভাবে উপভোগ করতে পারবেন এজন্য আমরা কিছু তথ্য আপনাদের মাঝে শেয়ার করেছি।

জীবনকে উপভোগ করার জন্য আপনি হয়তো বেশি বেশি বই পড়তে পারেন। জ্ঞান অর্জন করে অনেকেই জীবনে অনেক কিছুই উপভোগ করতে পারে। প্রকৃতির সৌন্দর্য উপভোগ করে জীবনের সত্যতা যাচাই করতে পারবেন। জীবন উপভোগ করতে হলে আপনাকে আপনার চিন্তার প্রতি নজর রাখতে হবে আপনার মনের কথা শুনতে হবে। আপনি কি এবং কি করলে আপনার জীবনে সুখ-শান্তিতে পরিপূর্ণ হবে এই নিয়ে ভাবতে হবে। অসৎ সঙ্গ ত্যাগ করে জীবনকে সঠিকভাবে উপভোগ করতে হবে।

আপনার চাহিদার প্রতি নজর রেখে আপনি আপনার জীবনকে উপভোগ করতে পারবেন। ঠিকই জীবনে ভালো-মন্দ খাওয়া দাওয়া কিংবা গান শোনা বই পড়া বন্ধু-বান্ধবের সাথে গল্প করা ইত্যাদির মধ্যে জীবন উপভোগ করতে পারে। দেশ ও জাতির উন্নতির জন্য অনেকেই রাজনীতি করে জীবন উপভোগ করে। জীবন বিষয়টি যেমন সত্য তেমনি জীবনকে উপভোগ করার জন্য অবশ্যই আপনি আপনার চিন্তা আপনার মানসিক কামনার ওপর জোর দিন। আপনি জীবন উপভোগ করতে পারবেন।

জীবন উপভোগ করার কিছু উক্তি

আপনার জীবন সুন্দর হোক সাফল্যমন্ডিত হোক। জীবনকে সুন্দর করার জন্য আমাদের সহানুভূতিশীল নিয়মাবর্তিতা এবং অনুগত্যশীল হতে হবে। জীবনকে উপভোগ করার জন্য বিখ্যাত কবিরা জীবন উপভোগ করার জন্য বিভিন্ন উক্তি দিয়ে গেছেন। এই অনুচ্ছেদে কবিদের বিভিন্ন উক্তি শেয়ার করা হয়েছে। এ সকল উক্তি থেকে আপনি জীবনকে কিভাবে উপভোগ করবেন এ নিয়ে কিছু তথ্য পেয়ে যাবেন।

জীবনে সব লড়াই একাই লড়তে হয়, মানুষ কেবল সান্ত্বনাই দিয়ে যায়, সাথে কেউ থাকেনা ।
— সংগৃহীত

আমরা যদি সময়ের যত্ন নিই, তবে সময় আমাদের জীবনের যত্ন নেবে।
— মারিয়া এজগ্লোথ

মানুষের জীবনে দুইটা সময় থাকে, একটা হচ্ছে মূল্যবান আরেকটা হচ্ছে মূল্যহীন ।
— এইচ আর এস

হ্যাঁ এবং না কথা দুটো সবচেয়ে পুরনো এবং সবচেয়ে ছোট, কিন্তু এ কথা দুটো বলতেই সবচেয়ে বেশি ভাবতে হয় ।
— পিথাগোরাস

স্বপ্নপূরণই জীবনের একমাত্র লক্ষ্য নয়, তাই বলে স্বপ্নকে ত্যাগ করে নয় , তাকে সঙ্গে নিয়ে চলো , স্বপ্ন ছাড়া জীবন অর্থহীন ।
— ব্রায়ান ডাইসন

যেখানে পরিশ্রম নেই সেখানে সাফল্যও নেই ।
— উইলিয়াম ল্যাংলয়েড

জীবন যত সামনের দিকে যাবে, ততই কঠিন হতে থাকবে ।
— হাবিবুর রাহমান সোহেল

.যে পরিশ্রমী সে অন্যের সহানুভূতির প্রত্যাশী নয় ।
— এডমন্ড বার্ক

যারা আমাকে সাহায্য করতে মানা করে দিয়েছিল, আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ কারন তাদের ‘না’ এর জন্যই আজ আমি নিজের কাজ নিজে করতে শিখেছি ।
— আইনস্টাইন

সবাই অনেকদিন বাঁচতে চায় কিন্তু কেউই বুড়ো হতে চায় না ।
— জোনাথন সুই

জীবনকে সুন্দর করা যায় ইসলামী উক্তি

জীবনকে সুন্দর করার জন্য ইসলাম ধর্মে বিভিন্ন ধরনের নিয়ম-কানুন ও রীতিনীতি দিয়েছেন। এ সকল নিয়ম নীতি মানলেই আপনার জীবন সুন্দর এবং স্বাচ্ছন্দ্যময় হবে। ধর্ম রীতি নীতির মধ্যে দিয়ে জীবনকে উপভোগ করতে পারলে আপনার জীবনের সর্বোচ্চ কামনা পূর্ণ হবে। আপনি সত্যের পথে চলুন। সর্বদাই সত্য কথা বলবেন এবং আত্ম অহংকার বাদ দিয়ে সমাজ জাতির সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করুন। এই নিবন্ধে ইসলাম ধর্মীয় কিছু উক্তি শেয়ার করা হয়েছে।

আর দুনিয়ার জীবন, খেলাধুলা ও তামাশা ছাড়া কিছুই না ।
— সূরা আনয়াম – ৩২

জীবন হোক কর্মময়, নিরন্তর ছুটে চলা। চিরকাল বিশ্রাম নেয়ার জন্য তো কবর পড়েই আছে ।
– হযরত আলী (রাঃ)

এই পৃথিবী কখনো খারাপ মানুষের খারাপ কর্মের জন্য ধ্বংস হবেনা।যারা খারাপ মানুষের খারাপ কর্ম দেখেও কিছু করেনা তাদের জন্যই পৃথিবী ধ্বংস হবে॥”

অসৎ লোক কাউকে সৎ মনে করেনা, সকলকেই সে নিজের মত ভাবে।- হজরত আলী (রাঃ)

পূর্ণ অর্জন অপেক্ষায়, পাপ বর্জন করা শ্রেষ্ঠতর।- হজরত আলী (রাঃ)

সে ব্যক্তি মুমিন নয় যে নিজে তৃপ্তি সহকারে আহার করে, অথচ তার প্রতিবেশী অনাহারে থাকে॥”- আল হাদিস।

নিচ লোকের প্রধান হাতিয়ার হচ্ছে অশ্লীল বাক্য।- হযরত আলী (রা)

যে নিজের মর্যাদা বোঝেনা অন্যেও তার মর্যাদা দেয় না!- হযরত আলী (রাঃ)

আল্লাহর ভয়ে তুমি যা কিছু ছেড়ে দিবে, আল্লাহ্ তোমাকে তার চেয়ে উত্তম কিছু অবশ্যই দান করবেন।
__বিশ্বনবী হযরত মোহাম্মদ (সঃ)

সুন্দর জীবনের প্রত্যাশা

প্রতিবর্তী প্রত্যাশা করে তার জীবন সুন্দর হবে। জীবনে সুখে-দুখে হাসি আনন্দে পরিপূর্ণ থাকবে। জীবনের সকল চাহিদা আশা-আকাঙ্ক্ষা পূর্ণ হবে। জীবনের প্রত্যাশা প্রত্যেকেরই হয়। হয়তো জীবনে অনেকেই ভালো চাকরির প্রত্যাশা করে। কেউবা জীবনের আকাঙ্ক্ষাগুলো কে পূর্ণ করার জন্য অনেক ধরনের প্রত্যাশা করে। কেউ এটি সুন্দর বাড়ি দিবে কেউ হয়তো বা অনেক সম্পত্তির মালিক হবে কেউবা জীবনে পৃথিবী দেখার প্রত্যাশা করে। মানুষের প্রত্যাশার শেষ নেই। ছোট এই জীবনে প্রত্যাশার শেষ থাকেনা তাই আমরা জীবনে প্রত্যাশা করেই চলি। আমাদের প্রত্যাশাগুলো অবশ্যই সুখ-শান্তি এবং আমাদের পূর্ণতার ওপর পরিপূর্ণ হয় এই আশা ব্যক্ত করি।

পরিশ্রম তোমার সুন্দর চেহারা ভেঙে সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ে দেবে।

ব্যর্থ হলে ভেঙে পরবেন না।নিজের ওপর বিশ্বাস রাখুন, আপনি পারবেন।

কখনো ভেঙে পড়োনা। পৃথিবীর যা কিছু হারিয়ে যায় অন্য কোন রূপে সেটি আবার ফিরে আসে জীবনে।
— রূমি

বেশি যারা ভাবে তারা জীবনকে উপভোগ করতে পারে না
— বুদ্ধদেব গুহ

যে মনের দিক থেকে বৃদ্ধ নয়, বার্ধক্য তার জীবনে আসে না
— ফিলিপ ম্যাসিঞ্জার

আমি বৃষ্টিতে হাটতে ভালোবাসি কারন তাতে চোখের জল বোঝা যায়না।
— চার্লি চ্যাপিলিন

বেশিরভাগ ব্যার্থ পুরুষ হাল ছেড়ে দেওয়ার আগে বুঝতেই পারেনা তারা সফলতার ঠিক কতটুকু কাছাকাছি ছিলো।

কোনো মেয়ের পক্ষে শুধুমাত্র রূপ দিয়ে একটি পুরুষকে দীর্ঘদিন মুগ্ধ করে রাখা সম্ভব না।
— হুমায়ূন আহমেদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *