টিপস

ভূমি উন্নয়ন কর অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন

অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর কিভাবে পরিশোধ করবেন অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন ইত্যাদ ি সকল তথ্য আমি আপনাদের জানিয়ে দেবো। তাই আপনারা যারা ভূমি উন্নয়ন কর অনলাইন রেজিস্ট্রেশন করতে চাচ্ছেন তাদের জন্য এই অনুচ্ছেদটি। আশা করি আমার এই অনুচ্ছেদে ভূমি উন্নয়ন করার গুরুত্ব এবং রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি সহ সমস্ত তথ্য জানতে পারবেন। তাই পুরো আর্টিকেল মনোযোগ দিয়ে পড়ার অনুরোধ রইল।

সরকার হয়রানি কমাতে দ্রুত গ্রাহক সেবা ইত্যাদির জন্য ভূমি তথ্য ব্যাংক চালু করেছেন। ভূমিকর দেওয়া থেকে শুরু করে ভূমি দপ্তরের বেশিরভাগ কাজ অনলাইনে সম্পন্ন করার উদ্যোগকে সকলে সাধুবাদ জানিয়েছে। এই তথ্য ভান্ডারে আপনি পাবেন জমির যাবতীয় তথ্য এবং জমির এস এ খতিয়ান আরএস এ খতিয়ানের বর্ণনা। এর ফলে আপনার বহু পুরাতন দলিলপত্র হারিয়ে গেলে বা নষ্ট হয়ে গেলেও সরকারি রেকর্ড নিয়ে কোন জটিলতা থাকবে না আর অনলাইনে সংরক্ষিত থাকায় এসব রেকর্ড জালিয়াতি করতে পারবে না।

অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর পরিষেবা

যাদের জমি রয়েছে, বাড়ি বা ফ্লাটের মালিকানার অংশ হিসেবে জমি পেয়েছেন তাদের ভূমি উন্নয়ন কর্তাও বাধ্যতামূলক। পূর্বে এই ব্যবস্থা জটিল থাকার কারণে অনেকে ভুমি উন্নয়ন কর দিতে পারেনি। কিন্তু বর্তমান ডিজিটালাইজেশনে ফলে খুব সহজে ভূমি উন্নয়ন কর ঘরে বসে পরিশোধ করতে পারবেন।

ভূমি উন্নয়ন কর অনলাইনে রেজিস্ট্রেশনের নিয়ম

ভূমি উন্নয়ন কর অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করার জন্য আপনাকে সর্বপ্রথম ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। সেখানে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র মোবাইল নম্বর জন্ম তারিখ দিয়ে একটি একাউন্ট তৈরি করতে হবে।

Related Articles

একান্ত তৈরি করা হয়ে গেলে আপনি নিম্নোক্ত উপায় খুব সহজেই ভূমি উন্নয়ন কর পরিষদ করতে পারবেন।

কিভাবে অনলাইনে ভুমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করবেন?

ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের জন্য বাংলাদেশের ভূমি মন্ত্রণালয় একটি অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করেছে।

প্রথমে ভূমির মালিককে এই অ্যাপের সঙ্গে নিজেকে নিবন্ধন করতে হবে। একবার নিবন্ধিত হলে তার পরবর্তীতে আর নিবন্ধন প্রয়োজন হবে না।

তিনটি প্রক্রিয়ায় এই নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করা যাবে:

১. Land.gov.bd অথবা ldtax.gov.bd এই পোর্টালে প্রবেশ করে জাতীয় পরিচয় পত্র, জন্ম তারিখ ও মোবাইল ফোন নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে।

২. ভূমি মন্ত্রণালয়ের কল সেন্টার ৩৩৩ অথবা ১৬১২২ নম্বরে ফোন করে এনআইডি নম্বর, জন্ম তারিখ, ফোন নম্বর ও জমির তথ্য প্রদান করে।

৩. যেকোনো ইউনিয়ন ডিজিটাল অফিসে এনআইডি কার্ড, জন্ম তারিখ ও খতিয়ান নম্বর ব্যবহার করে।

নিবন্ধনের পর এই পোর্টালে লগইন করে অথবা ইউনিয়ন ডিজিটাল অফিসে গিয়ে ভূমির উন্নয়ন কর দিতে পারবেন। এই সময় বিকাশ বা নগদের মতো মোবাইল ওয়ালেট ব্যবহার করে করের টাকা পরিশোধ করা যাবে।

কর দেয়ার পর ইমেইলে অটোমেটিক একটি জমার রসিদ চলে আসবে। এটিই ভূমি উন্নয়ন করের রসিদ।

ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের জন্য বাংলাদেশের ভূমি মন্ত্রণালয় একটি অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করেছে।

প্রথমে ভূমির মালিককে এই অ্যাপের সঙ্গে নিজেকে নিবন্ধন করতে হবে। একবার নিবন্ধিত হলে তার পরবর্তীতে আর নিবন্ধন প্রয়োজন হবে না।

তিনটি প্রক্রিয়ায় এই নিবন্ধন কার্যক্রম সম্পন্ন করা যাবে:

১. Land.gov.bd অথবা ldtax.gov.bd এই পোর্টালে প্রবেশ করে জাতীয় পরিচয় পত্র, জন্ম তারিখ ও মোবাইল ফোন নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে।

২. ভূমি মন্ত্রণালয়ের কল সেন্টার ৩৩৩ অথবা ১৬১২২ নম্বরে ফোন করে এনআইডি নম্বর, জন্ম তারিখ, ফোন নম্বর ও জমির তথ্য প্রদান করে।

৩. যেকোনো ইউনিয়ন ডিজিটাল অফিসে এনআইডি কার্ড, জন্ম তারিখ ও খতিয়ান নম্বর ব্যবহার করে।

নিবন্ধনের পর এই পোর্টালে লগইন করে অথবা ইউনিয়ন ডিজিটাল অফিসে গিয়ে ভূমির উন্নয়ন কর দিতে পারবেন। এই সময় বিকাশ বা নগদের মতো মোবাইল ওয়ালেট ব্যবহার করে করের টাকা পরিশোধ করা যাবে।

কর দেয়ার পর ইমেইলে অটোমেটিক একটি জমার রসিদ চলে আসবে। এটিই ভূমি উন্নয়ন করের রসিদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *