টিপস

স্বামীকে কিভাবে ইমপ্রেস করবেন, স্বামীকে বশীভূত করার গোপন টিপস

স্বামীকে কিভাবে ইমপ্রেস করবেন, অথবা স্বামীকে বশীকরণ করার গোপন টিপস আজকের এই অনুচ্ছেদের শেয়ার করা হবে। তাই আপনারা যারা স্বামীকে ইমপ্রেস করার কথা অনুসন্ধান করে আমার এই অনুচ্ছেদে এসেছেন তাদের এই অনুচ্ছেদে স্বাগতম। আমরা এই অনুচ্ছেদের মাধ্যমে আপনাদের জানিয়ে দেবো কিভাবে স্বামীকে বশীকরণ করবেন বা আপনার স্বামী আপনার কথা মতো উঠবে এবং বসবে। এ সকল গোপন টিপস জানার জন্য আমার এই অনুচ্ছেদটি আপনাকে ভালো করে পড়তে হবে। তাহলে অতি সহজে আপনার স্বামীকে আপনার আয়ত জানবেন এবং আপনার স্বামী আর অন্য কোন রাস্তায় যাবে না এটা আমি নিশ্চিত হয়ে বলতে পারি।

দাম্পত্য জীবনে অনেক মেয়ে মানুষের অভিযোগ হল তার স্বামী তার কথা শুনে না। স্বামী বহু রাত করে বাড়িতে ফিরে, তাকে ঠিকঠাক মত সময় দেয় না, অতিরিক্ত হাত খরচ করে ইত্যাদি নানান সমস্যায় ভুগে বর্তমান দাম্পত্য জীবনের মেয়েরা । আত্মার দাম্পত্য জীবনকে আরও সুখের এবং আনন্দ ঘন করার জন্য এবং স্বামীকেই নিজের আয়ত্তে আনার জন্য আজকের এই অনুষদে আমরা কিছু গোপন টিপস আপনাদের জন্য শেয়ার করব। আশা করি আমার এই টিপস গুলো আপনাদের পছন্দ হবে এবং আপনি এই টিপস গুলো অনুসরণ করলে অতি সহজেই আপনার স্বামীকে আপনার আয়ত্তে আনতে পারবেন। চলুন আজকের এই অনুচ্ছেদটির মূল বিষয়বস্তু সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা নেই।

স্বামীকে কিভাবে ইমপ্রেস করবেন

স্বামীকে খুশি রাখার জন্য আপনাকে কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হবে। আপনাকে স্বামীর সামনে সুন্দর এবং আকর্ষণীয়ভাবে উপস্থাপন করতে হবে । আপনি যত সম্ভব স্বামীর কাছ থেকে কোন কিছু চাওয়ার সময় একটু ভেবেচিন্তে বলবেন। আপনি খেয়াল করে দেখবেন আপনার স্বামীর হাতে কখন বেশি পরিমাণ টাকা থাকে, যখন বেশি পরিমাণ টাকা থাকবে ঠিক সেই সময় আপনার পাওনা গুলো আদায় করে নেবেন। এছাড়াও আরো অনেক টিপস আছে স্বামীকে খুশি করার যেগুলো আমরা আক্রমণ নিয়ে শেয়ার করব।

১. নিজেকে সবসময় হাসিখুশি রাখার চেষ্টা করুন।

Related Articles
2.সারাদিনের কাজের পরে রাতে বাড়ি ফিরে আপনার হাসি মুখ দেখে আপনার স্বামী খুবই খুশি হবেন। ২. সবরকম রান্না করতে শিখুন। দেশী বিদেশি রান্না করে ছুটির দিনে স্বামীর খাবার টেবিলে দিন। দেখবেন আপনার স্বামী আপনার রান্না খেয়া কত প্রশংসা করছেন।

৩. স্বামীকে কোন ভাবেই সন্দেহ করবেন না। বিশেষ করে ফোন নিয়ে। রাতে যদি কারুর ফোন আসে তাহলে সেটা নিয়ে অহেতুক ঝগড়া করতে যাবেন না। ৪. স্বামীকে বিছানায় খুশি রাখার চেষ্টা করুন। কারণ সব স্বামিই চায় তার শারীরিক সম্পর্কের দিক যেন ঠিক থাকে। নিজেকে আধুনিক করার চেষ্টা করুন।

৫. স্বামীর সেবাযত্ন করুন। তাকে মাঝে মাঝে ম্যাসাজ করে দিন বডিতে। মাঝে মাঝে মাথায় অয়েল ম্যাসাজ দিন। ৬. সম্পর্কের মধ্যে স্বচ্ছতা বজায় রাখার চেষ্টা করুন। এমন কোন কাজ করবেন না যাতে আপনাকে তাকে মিথ্যা কথা বলতে হয়। তার থেকে লুকিয়ে কোন কাজ করবেন না।

৭. নিজেকে সব সময় তৈরি রাখবেন যাতে স্বামী বলার সাথে সাথেই আপনি তার সাথে ঘুরতে বেড়াতে যেতে পারেন। ৮. স্বামী যদি কোন কাজে ভুল সিধান্ত নেয় তাহলে সেটা তাকে বোঝানোর চেষ্টা করুন।

৯. স্বামীর পছন্দের জিনিসকে নিজেও ভালোবাসতে শিখুন। দেখবেন এটাতে উনি অনেক খুশি হবেন। ১০. স্বামীর বন্ধু ও তার পরিবারের সবার সাথে আপনিও বন্ধুত্ব করে নিন। দেখবেন আপনার স্বামী এটাতে কতটা খুশি হবেন।

স্বামীকে বশীভূত করার গোপন টিপস

আমরা উপরে যে আলোচনা করছি মোটামুটি এই টিপস গুলো ফলো করলে আপনি আপনার স্বামীকে আস্তে আনতে পারবেন। এছাড়াও ইসলামিক উপায় আপনার স্বামীকে আপনি আয়ত্তে আনতে পারবেন। এই আর্টিকেলে নিচের দিকে স্বামীকে আনার ইসলামিক পদ্ধতি আলোচনা করব। তার আগে আসুন স্বামীকে বশ করার কিছু আমল জেনে আসি।

২ রাকাত নফল নামায বা সালাতুল হাজত পড়িবেন। (উদ্দেশ্য পূরনের নামাজ)
সালাতুল হাজতের প্রথম রাকাতে সূরা ফাতেহার পর সূরা কাফিরুন ১১ বার পড়িবেন।
দ্বিতীয় রাকাতে সূরা ফাতেহার পর সূরা ইখলাছ ১১ বার পড়িবেন।
ছালাম ফিরানোর পর দুরুদ শরীফ ৭ বার পড়িবেন।
এরপর ইয়া ওয়াদুদু ৩১৩ বার পড়িবেন।
তারপর আবারও দুরুদ শরীফ ৭ বার পড়িবেন।
পরে মুনাজাত করিবেন। এই মুনাজাতে মহান রাব্বুল আলামীনের দরবারে আপনার চাওয়া পাওয়ার বাসনা গুলো তুলে ধরবেন।

স্বামীকে বশ করার জন্য দোয়া

হাদিস শরীফে উল্লেখিত দোয়া সংযুক্ত করেছি। আপনি এখান থেকে দোয়াটি দেখে নিতে পারেন এবং মুখস্ত করে আমার নির্দেশ অনুযায়ী ফলো করলে স্বামী আপনার বসে আসবে।

ইয়া-বাসিতু ,এই দোয়াটি আমল করলে স্বামীকে বশ করা যায়,এই নামটি ৩০০বার পাঠ করে পানিতে দম দিয়ে ঐ পানিটি খাওয়াবেেন এইভাবে ৩দিন করতে হবে

পরামর্শঃ স্বামীকে নিজের বশের আনার জন্য বা নিজের সান্নিধ্যে রাখার জন্য স্বামী খুশি হয় এমন সব কাজ করুণ। নিজেকে আদর্শ স্ত্রী ও নারী হিসেবে গড়ে তুলুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *